রুশ নারীদের ৮টি করে সন্তান নেয়ার পরামর্শ দিলেন কেন?

আগের সংবাদ

বিএনপি-জামায়াতের ডাকা ৯ম দফা অবরোধ, কী চলছে শহরে?

পরের সংবাদ

বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর

চিত্রে আসাদের আঁকা ‘বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৪, ২০২৩ , ১১:২২ অপরাহ্ণ আপডেট: ডিসেম্বর ৪, ২০২৩ , ১১:২২ অপরাহ্ণ
চিত্রে আসাদের আঁকা ‘বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’

ক্যানভাসে নানা কারিশমায় উঠে এলো প্রজ্ঞাবান এক নেতার মুখ। যে মুখ আর কারো নয়। বাঙালির প্রাণের মানুষ বঙ্গবন্ধুর। তারই সংগ্রামী জীবনের নানা চিত্র রঙ তুলির মধ্য দিয়ে চিত্রায়িত করেছেন ব্রিটিশ বাংলাদেশী চিত্রশিল্পী এস এম আসাদ। গ্যালারির দেয়ালে দেখা গেল ঐতিহাসিক ৭ মার্চের প্রেক্ষাপট, বাহান্নর ভাষা আন্দোলনের প্রেক্ষাপট, বাঙালির বিজয় উৎসবের গল্প, উড়ন্ত পায়ড়ার মধ্যে উল্লসিত বঙ্গবন্ধু, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সংগ্রামমুখর রাজনৈতিক জীবন, জাতিসংঘে ১৯৭৪ সালে তার প্রদত্ত ঐতিহাসিক বক্তৃতা ও বিশ্বনেতাদের সঙ্গে নানা বৈঠকসমূহের অসাধারণ কিছু মুহূর্ত ক্যানভাসে উঠে এসেছে, বহির্বিশে^ ভাষনরত আত্মপ্রত্যয়ী বঙ্গবন্ধুর অবিনাশি মুখ, ৬ দফা আন্দোলনের উত্তাল মিছিলে উদ্বেল জনসমুদ্রে বঙ্গবন্ধু, পঁচাত্তর পরবর্তী রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটসহ বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামমুখর জীবনের ছবি চিত্রায়িত করেছেন অনন্য ভঙ্গিমায়।

সোমবার বিকালে বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের নলিনীকান্ত ভট্টশালী গ্যালারীতে বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর ও ব্রিটিশ বাংলাদেশী চিত্রশিল্পী এস এম আসাদের যৌথ উদ্যোগে শিল্পীর আঁকা ‘বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’ শিরোনামে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন সংগ্রাম এবং রাজনৈতিক কর্মকান্ডের উপর তথ্য নির্ভর চিত্রকলা প্রদর্শনীতে শিল্পীর তুলিতে বঙ্গবন্ধুকে এভাবেই চিত্রায়িত করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রদর্শনীটি উদ্বোধন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ও বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর পর্ষদের সভাপতি অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের মহাপরিচালক মোঃ কামরুজ্জামানের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা ও বাংলাদেশ টেলিভিশনের সাবেক প্রধান বার্তা সম্পাদক শেখ সালেক। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট ও উদীচী শিল্পগোষ্ঠীর যুক্তরাজ্যের সভাপতি গোলাম মোস্তফা। অনুভূতি ব্যক্ত করেন শিল্পী এস এম আসাদ। স্বাগত বক্তব্য দেন গ্যালারী চিত্রকের নির্বাহী পরিচালক মো. মনিরুজ্জামান।

বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ প্রসঙ্গে আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, সাড়ে সাত কোটি মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করার মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ গড়ে তোলার নায়ক ছিলেন। তাই
বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশের জন্মগাথা একই সূত্রে নিহিত। এর পেছনে দেশের গরিব দুঃখী মানুষের ভালোবাসাই ছিল তার প্রধান শক্তি। দেশপ্রেম, সাহসিকতা ও সংগ্রামী মূল্যবোধের চেতনায় তিনি প্রতিষ্ঠা করেছেন বাংলাদেশ। তার দেখানো পথেই ভবিষ্যতের বাঙালি পেতে পারে আলোকিত আগামীর অনন্ত সম্ভাবনার সমূহ সূত্র।

তিনি বলেন, এক সুকঠিন আদর্শিক সংগ্রামের মধ্য দিয়ে বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতিসত্তা প্রতিষ্ঠা করে পর্যায়ক্রমে জন্ম দিয়েছেন ভাষাভিত্তিক, অসাম্প্রদায়িক বাঙালি জাতিরাষ্ট্র। তার প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশ এখন সারা বিশ্বে এক অনন্ত সম্ভাবনার প্রতীক রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি পাচ্ছেÑএ আমাদের পরম আনন্দ ও গৌরবের বিষয়।

শিল্পী এস এম আসাদ বলেন, বঙ্গবন্ধুর জীবন এবং রাজনৈতিক কর্মকান্ডের উপর ছাত্র জীবন থেকেই একটি ধারাবাহিক চিত্রকর্ম করার আগ্রহ ছিলো আমার। প্রবাস জীবনের প্রতিটি সময় মনে মনে দহন হয়েছে কখন এটি শেষ করব। সুদীর্ঘ ৩০ বছর পেরিয়ে গেছে প্রজেক্টটি শেষ করতে। ছবিগুলো আঁকার সময় তত্ত্ব ও তথ্যের উপর ভিত্তি করে আঁকা, যা প্রায় সবগুলোই শিল্পীর কল্পনা প্রসূত ও আবেগ নির্ভর। ছবিগুলি বর্ণনাধর্মী তৈলচিত্র। প্রতিটি ছবি ক্রমানুসারে দেখলে বঙ্গবন্ধুর জীবন, রাজনৈতিক কর্মকান্ড এবং বাংলাদেশ রাষ্ট্র সৃষ্টিতে তার অবদান সম্পর্কে সহজে ধারণা পাওয়া যায়। আমার বিশ^াস এমন উপস্থাপনা দর্শকের মনে সহজেই দাগ কাটবে।

প্রদর্শনটি চলবে ১৩ ডিসেম্বর ২০২৩ তারিখ পর্যন্ত। শনিবার থেকে বুধবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে বিকাল সাড়ে ৪টা এবং শুক্রবার বিকাল ৩ টা থেকে সন্ধ্যা ৭ টা পর্যন্ত দর্শকদের জন্য প্রদর্শনীর দরজা খোলা থাকবে। বৃহস্পতিবার ও অন্যন্য সরকারি ছুটির দিন প্রদর্শনী বন্ধ থাকবে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়