মেহেরপুরের দুটি আসনে ৮ প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল

আগের সংবাদ
শিগগিরই প্রকাশ হবে মিউজিক ভিডিও 'মন ময়ূরী'

শিগগিরই প্রকাশ হবে মিউজিক ভিডিও 'মন ময়ূরী'

পরের সংবাদ

সেনাবাহিনী-নৌবাহিনীর অফিসার পরিচয়ে প্রতারণা, মূলহোতা গ্রেপ্তার

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৩, ২০২৩ , ৪:৫৮ অপরাহ্ণ আপডেট: ডিসেম্বর ৩, ২০২৩ , ৪:৫৮ অপরাহ্ণ

সেনাবাহিনী ও নৌবাহিনীর অফিসার পরিচয়ে প্রতারণার ঘটনায় প্রতারক চক্রের মূলহোতাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শনিবার (২ ডিসেম্বর) দিবাগত রাত দুইটায় সিলেট বাসস্ট্যান্ড থেকে প্রতারকচক্রের মূলহোতা হাবিবুল্লাহকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তার নিকট থেকে সেনাবাহিনীর লেফটেন্যান্ট ও বিমানবাহিনীর সার্জেন্ট পদের দুইটি ভুয়া আইডি কার্ড জব্দ করা হয়েছে।

গ্রেপ্তার হাবিবুল্লাহ বাগেরহাট জেলায় থাকাবস্থায় বিমানবাহিনীর অফিসার পরিচয় দিয়ে নৌ-বাহিনীর অফিস সহায়ক কাম কম্পিউটার অপারেটর পদে নিয়োগ দেয়ার কথা বলে নেত্রকোণার আটপাড়া থানার ৫ জন ভুক্তভোগীর নিকট থেকে চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে প্রায় ৩০ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়।

পরবর্তীতে হাবিবুল্লাহ তার প্রথম স্ত্রীর বড় ভাই মহিবুল্লাহ ও তার ছোট ভাই মহিউদ্দীন এর মাধ্যমে চৌধুরী আবাসিক হোটেলে ভুক্তভোগী আরিফ খান, হাবিবুর রহমান, মোঃ ফরহাদ মিয়া, সৌরভ ও রাকিবের অফিস সহায়ক কামকম্পিউটার অপারেটর পদে ভুয়া লিখিত পরীক্ষা নেয় এবং পরীক্ষা শেষে উক্ত হোটেলেই তাদেরকে ভুয়া নিয়োগপত্র প্রদান করে। প্রতারণার বিষয়টি বুঝতে পেরে গত ২৭ জুলাই ভুক্তভোগী হাবিবুর রহমানের পিতা আরাধন নেত্রকোণা জেলায় পিবিআইকে ঘটনার বিষয়ে লিখিত অভিযোগ করেন। তার অভিযোগের প্রেক্ষিতে পিবিআই ঘটনার সত্যতা যাচাইয়ে প্রাথমিক অনুসন্ধান শুরু করে।

পিবিআই প্রধান অতিরিক্ত আইজিপি বনজ কুমার মজুমদার এর দিক নির্দেশনায় নেত্রকোণার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ শাহীনুর কবির এর সার্বিক সহযোগিতায় এসআই ফারুক হোসেন ঘটনার সত্যতা যাচাইয়ে প্রাথমিক অনুসন্ধান করেন। প্রাথমিক অনুসন্ধানে ঘটনার সত্যতা ওঠে আসে এবং এর প্রেক্ষিতে প্রতারণা ঘটনায় আটপাড়া থানার মামলা নং-১৯, তারিখ-২৭/০৭/২০২৩ রুজু হয়। পরবর্তীতে উক্ত থানায় আরো দুইটি প্রতারণা মামলা রুজু হয় (আটপাড়া থানার মামলা নং-১৩ এবং ১৪, তারিখ-৩১/০৮/২০২৩) রুজু হয়। মামলা রুজু হওয়ার পর থেকে ঘটনার সঙ্গে জড়িত আসামি আত্মগোপন করে।

নেত্রকোণা জেলার পিবিআই দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এসআই ফারুক হোসেন এর নেতৃত্বে পিবিআই নেত্রকোণা জেলার একটি চৌকস টীম খুলনায় ও সিলেটে অভিযান চালিয়ে গত ২ ডিসেম্বর দিবাগত রাত অনুমান দু্টায় টায় সিলেট বাস স্ট্যান্ড থেকে প্রতারক চক্রের মূলহোতা হাবিবুল্লাহকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এসময় তার হেফাজতে থাকা সেনাবাহিনীর লেফটেন্যান্ট ও বিমানবাহিনীর সার্জেন্ট পদের ২টা ভুয়া আইডি কার্ড বিধি মোতাবেক জব্দ করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামি হাবিবুল্লাহ প্রতারণামূলকভাবে ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে ৩০ লক্ষাধিক টাকা গ্রহণের বিষয়টি স্বীকার করেছে।

এ বিষয়ে পিবিআই নেত্রকোণা জেলার ইউনিট ইনচার্জ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ শাহীনুর কবির বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, “আসামি হাবিবুল্লাহ দীর্ঘদিন যাবৎ পলাতক ছিল। সে তার দ্বিতীয় স্ত্রী রাবেয়া বসরীকে নিয়ে খুলনার বিভিন্ন জায়গায় আত্মগোপনে ছিল। গত ২ ডিসেম্বর দিবাগত রাতে সে সিলেটে আসলে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে আমরা তাকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হই। তাকে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।”

 

এআই

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়