বিএনপির ২৪ ঘণ্টার অবরোধ চলছে

আগের সংবাদ

‘মানুষ বাঁচানোর কাজ প্রথম করলাম’

পরের সংবাদ

আরো ৩০ ফিলিস্তিনিকে মুক্তি ইসরায়েলের, হামাস ছাড়ল ১২ জনকে

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৯, ২০২৩ , ৮:৫৩ পূর্বাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ২৯, ২০২৩ , ৮:৫৩ পূর্বাহ্ণ

হামাস ও ইসরায়েলের মধ্যে চলমান যুদ্ধবিরতির চুক্তির অংশ হিসেবে পঞ্চম দফায় ইসরায়েল ৩০ ফিলিস্তিনি ও হামাস ১২ জনকে কারাগার থেকে মুক্তি দিয়েছে। বুধবার (২৯ নভেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা আনাদোলু ও সংবাদমাধ্যম বিবিসি ও আল জাজিরা।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হামাসের সঙ্গে বন্দি বিনিময় চুক্তির অধীনে ইসরায়েল মঙ্গলবার আরো ৩০ ফিলিস্তিনিকে মুক্তি দিয়েছে। মুক্ত পাওয়ার পর রেড ক্রসের একটি বাস ১৫ নারী ও ১৫ শিশুকে নিয়ে অধিকৃত পশ্চিম তীরের রামাল্লার কাছে বেইটোনিয়া শহরে ইসরায়েলের ওফার সামরিক কারাগার ছেড়ে গেছে।

অন্যদিকে, হামাস আরো ১২ বন্দিকে মুক্তি দিয়েছে বলে ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী এবং ইন্টারন্যাশনাল কমিটি অব রেড ক্রস (আইসিআরসি) জানিয়েছে। তারা ১২ জন বন্দিকে মিশর সীমান্তবর্তী রাফাহ ক্রসিং দিয়ে গাজা থেকে স্থানান্তর করার কাজে সফলভাবে সহায়তা করেছে। ইসরায়েলি সেনাবাহিনী জানিয়েছে, মুক্তিপ্রাপ্তদের ১০ জন ইসরায়েলি ও দুইজন থাইল্যান্ডের নাগরিক এবং তারা ইসরায়েলে পৌঁছেছেন।

উল্লেখ্য, গেল ৭ অক্টোবর হামাস-ইসরায়েল সংঘাত শুরুর ৪৮ দিন পর কাতার ও মিশরের মধ্যস্থতায় গত শুক্রবার থেকে গাজায় চার দিনের ‘মানবিক’ বিরতি শুরু হয়েছিল। সোমবার রাতেই এ বিরতি শেষ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু এখন মঙ্গল ও বুধবারও যুদ্ধবিরতি বজায় থাকবে, ফলে আরো বন্দি বিনিময়ের পথ খুলেছে। হামাস জানিয়েছে, তারা যুদ্ধবিরতি দুইদিন বাড়াতে রাজি হয়েছে। হামাসের পক্ষ থেকে সাংবাদিকদের কাছে প্রকাশিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “আগে যে সব শর্তে যুদ্ধবিরতি হয়েছিল, সেই একই শর্তেই যুদ্ধবিরতি চলবে।”

আগের চুক্তি অনুযায়ী, যুদ্ধবিরতির ৪ দিনে হামাসের অন্তত ৫০ জন ইসরায়েলি জিম্মিকে মুক্তি দেওয়ার কথা, বিনিময়ে ইসরায়েলের তাদের কারাগারে বন্দি অন্তত ১৫০ জন ফিলিস্তিনিকে মুক্তি দেবে এবং গাজায় ত্রাণবাহী ২০০ ট্রাকের পাশাপাশি এক লাখ ৪০ হাজার লিটার জ্বালানি ও গ্যাস ভর্তি অন্তত চারটি লরি প্রবেশের অনুমোদন দেবে বলে শর্ত ছিল।

এআই

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়