আজ থেকে শুরু হলো জাতীয় প্রেস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান

আগের সংবাদ
আল আকসা চত্বরে বিক্ষোভের ডাক দিয়েছে হামাস

আল আকসা চত্বরে বিক্ষোভের ডাক দিয়েছে হামাস

পরের সংবাদ

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-১

দুদকে জেল সুপার শাহাজাহানের বিরুদ্ধে মামলার অনুমোদন

প্রকাশিত: অক্টোবর ১৩, ২০২৩ , ৩:২৭ অপরাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ১৩, ২০২৩ , ৫:১৩ অপরাহ্ণ
কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-১ এর সিনিয়র জেল সুপার শাহাজাহান আহমদ

সম্পদের পাহাড় বানানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-১ এর সিনিয়র জেল সুপার শাহাজাহান আহমদের বিরুদ্ধে। অভিযোগে বলা হয়েছে, বানিয়েছেন একাধিক বহুতল ভবন। কিনেছেন বিলাসবহুল ফ্ল্যাট ও জমি। তবে নিজ নামে তিনি কিছুই করেননি। সবাই করেছেন স্ত্রী বেগম নুর নাহার লোটাসের নামে।

বুধবার (১১ অক্টেবর) দুদকের প্রধান কার্যালয়ের উপ-পরিচালক সুবেল আহমেদের স্বাক্ষর করা এক চিঠিতে শাহাজাহান আহমেদ এবং তার স্ত্রী বেগম নুর নাহার লোটাসের বিরুদ্ধে মামলার অনুমোদন দেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১২ অক্টোবর) দুদকের জনসংযোগ দপ্তর থেকে এ তথ্য জানা যায়।

দুদকের পক্ষ থেকে জানা যায়, শাহাজাহান আহমেদ কুমিল্লা কেন্দ্রীয় কারাগারেও সিনিয়র জেল সুপারের দায়িত্ব পালন করেছেন। সেখানে একক আধিপত্য বিস্তার করে কয়েক কোটি টাকা লোপাট করার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। এর মধ্যে রয়েছে কারাগারের পুকুরের মাছ বিক্রি, উৎপাদন বিভাগে উৎপাদিত পণ্যের টাকা আত্মসাৎ, টাকার বিনিময়ে কারারক্ষী নিয়োগ, বন্দি নির্যাতন করে অর্থ আদায়, কোয়ারেন্টিনে থাকা বন্দিদের অবৈধ সুবিধা প্রদান, কারা ক্যান্টিনে নগদে পণ্য বিক্রি করে লভ্যাংশ আত্মসাৎ, কারা হাসপাতালে সুস্থ লোককে অসুস্থ দেখিয়ে ভর্তি রেখে টাকা আদায়, সিট ও মোবাইল বাণিজ্য ইত্যাদি।

শাহাজাহান ২০২০ সালের নভেম্বরে কুমিল্লা কারাগারে যোগ দেন। বন্দি নির্যাতনের অভিযোগে তার বিরুদ্ধে আদালতে মামলাও হয়। এ ছাড়া বন্দি নির্যাতনের কয়েকটি ঘটনায় তার বিরুদ্ধে প্রশাসনের পক্ষ থেকে তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়।

দুদক তদন্ত সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ঢাকা ও টাঙ্গাইলে শাহাজাহানের স্ত্রী নুর নাহার লোটাসের নামে একাধিক বাড়ি, ফ্ল্যাট, গাড়ি ও কয়েকশ বিঘা কৃষি জমি রয়েছে।

এসএম

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়