পাথরঘাটায় ৫ কোটি টাকা মূল্যের নিষিদ্ধ হাঙ্গরের শুটকি জব্দ

পাথরঘাটায় ৫ কোটি টাকা মূল্যের নিষিদ্ধ হাঙ্গরের শুটকি জব্দ

আগের সংবাদ
রাজের সঙ্গে হাতাহাতি, নিজের হাত কাটলেন পরী!

রাজের সঙ্গে হাতাহাতি, নিজের হাত কাটলেন পরী!

পরের সংবাদ

চাকরি না পাওয়ার হতাশায় ঢাবি ছাত্রীর আত্মহত্যা

প্রকাশিত: আগস্ট ২০, ২০২৩ , ৫:৫৮ অপরাহ্ণ আপডেট: আগস্ট ২০, ২০২৩ , ৬:২৪ অপরাহ্ণ
চাকরি না পাওয়ার হতাশায় ঢাবি ছাত্রীর আত্মহত্যা

রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানী পৌর বাজারের নিপেন কর্মকারের মাষ্টার্স পাশ মেয়ে ঋতু কর্মকার নিপা বিষ পানে মারা গেছেন। রবিবার (২০ আগস্ট) ময়নাতদন্ত শেষে তার মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এর আগে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার (১৯ আগষ্ট) বেলা ১২টায় মারা গেছে। আগের দিন শুক্রবার (১৮ আগষ্ট) সকালে বিষ পানের অভিযোগ নিয়ে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল বলে জানা গেছে।

জানা যায়, মাস্টার্স পাশ করে ঢাকার রসুলপবাগের এক মেসে থেকে বিসিএস ও আমেরিকা যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিল রাজশাহী কলেজের (ঢুসার্ক) সাবেক সাধারণ সম্পাদক ঋতু কর্মকার নিপা। ২০১৫-২০১৬ শিক্ষাবর্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিষয়ে ভর্তি হন। ২০২০ সালে সেখান থেকে মাষ্টার্স সম্পন্ন্ করেন। লেখাপড়া করা অবস্থায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় স্টুডেন্টস এসোসিয়েশন অব রাজশাহী কলেএজর (ঢুসার্ক) সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বে ছিলেন।

নিপার ছোট ভাই বিজয় কুমার কর্মকার জানান, বিষ পানের খবর পেয়ে মেডিকেলে গিয়ে বোনের এক বান্ধবীর বরাত তিনি বলেন, শুক্রবার (১৮ আগস্ট) বিষ পানের পর সে নাকি অস্থির হয়ে উঠেছিল। মেসে থাকতে না পেরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ ক্যাম্পাসে তার বান্ধবীর কাছে যায়। তাকে (বান্ধবী) ঘটনা জানানোর পর মেডিকেলের জরুরি বিভাগে নেয়ার পর ভর্তি রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিল। অবস্থার অবনতি হলে আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়েছিল। শনিবার (১৯ আগস্ট) বেলা ১২টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

আত্মহত্যার কারণ সম্পর্কে কিছুই জানতে পারেননি বলে জানান তিনি। তবে মাষ্টার্স সম্পন্ন করেও চাকরির ব্যবস্থা না হওয়ায়, মানসিক রোগে ভুগছিল নিপা। ঢাকা রসুলপবাগের এক মেসে থেকে বিসিএস ও আমেরিকা যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিল।

ঋতু কর্মকার নিপার বাল্যকালের সহপাটি রুবেল আহম্মেদ বলেন, প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এক সাথে লেখা-পড়া করেছি। ২০১৩ সালে আড়ানী মনোমোহিনী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে কৃতিত্বের সাথে এসএসসি এবং ২০১৫ সালে রাজশাহী কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়। একজন মেধাবী শিক্ষার্থীর এমন মৃত্যুর ঘটনায় সহপাঠীসহ গ্রামের মানুষ হতবাক ও শোকাহত।

ঢাকার শাহাবাগ থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) মোহাম্মদ সুমন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, প্যারাকুয়েট অর্থাৎ ঘাসমারা জাতীয় বিষ পাণ করে আত্মহত্যা করেছে বলে জানতে পেরেছি। এ বিষয়ে একটি ইউডি মামলা হয়েছে। মৃত্যুর রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

কেএমএল

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়