ঘর পেলেন আরও ২২ হাজার গৃহহীন পরিবার

আগের সংবাদ
কলকাতায় ফুলহাতা জামা-প্যান্ট পরার নির্দেশ

কলকাতায় ফুলহাতা জামা-প্যান্ট পরার নির্দেশ

পরের সংবাদ

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আলফাডাঙ্গা ভূমিহীন-গৃহহীন মুক্ত

প্রকাশিত: আগস্ট ৯, ২০২৩ , ১১:০১ পূর্বাহ্ণ আপডেট: আগস্ট ১০, ২০২৩ , ৩:৪৮ পূর্বাহ্ণ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলাকে ভৃমিহীন-গৃহহীন মুক্ত করা হয়েছে। উপকারভোগী ৭৩৫ জন পরিবারের মাঝে জমিষহ গৃহ প্রদান করা হয়েছে।

নদীর কূলে, রাস্তার পাশে কেউ অন্যের বাড়ি বা জমিতে আশ্রিত, কেউবা নদী ভাঙনে বিপর্যস্ত এমনকি খোলা আকাশের নিচে মানবতার জীবন যাপন করছেন এমন ছিন্ন পরিবাররা পেয়েছেন।

তারাই প্রধানমন্ত্রীর এই উপহার জমিসহ ঘর গ্রহণ করেন। যেখানে থাকবে নাগরের সকল সুযোগ সুবিধা। সেই সঙ্গে থাকবে হাস, মুরগী, গরু ছাগল পালনসহ কৃষি কাজ করার ব্যাপক সুবিধা।

প্রধানমন্ত্রীর এ প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে আশ্রায়ণ প্রকল্প-২ এর আওতায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক আলফাডাঙ্গা উপজেলায় তিনটি ধাপে সর্বমোট ৭৩৫টি ঘরের মালিকানা উপকার ভোগীদের মাঝে হস্তান্তর করা হয়েছে। এরপর সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যানের প্রত্যয়নের প্রেক্ষিতে গত ২০ মার্চ টাস্কফোর্স কমিটি সভার মাধ্যমে এ উপজেলাকে ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষণা করার জন্য প্রস্তাব প্রেরণ করা হয়। গত ২২ মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ১৫৯টি উপজেলার সাথে আলফাডাঙ্গা উপজেলাকে আনুষ্ঠানিকভাবে ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষণা দেন।

এর ধারাবাহিকতায় বুধবার (৯ আগস্ট) সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে যুক্ত হয়ে দেশব্যাপী আশ্রায়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় চতুর্থ পর্যায়ে ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জমিসহ গৃহ হস্তান্তর করেন। গণভবন থেকে পরিচালিত অনুষ্ঠানটি আলফাডাঙ্গা উপজেলা সম্মেলন কক্ষে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়।

এ সময় আলফাডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রফিকুল হকের সভাপতিত্বে অংশগ্রহণ করেন উপজেলা চেয়ারম্যান এ কে এম জাহিদুল হাসান, পৌর মেয়র আলী আকসাদ ঝন্টু, সহকারী কমিশনার (ভূমি) রজত বিশ্বাস, আলফাডাঙ্গা থানা অফিসার ইনচার্জ মো. আবু তাহের, গোপালপুর ইউপি চেয়ারম্যান খান সাইফুল ইসলাম, আলফাডাঙ্গা প্রেসক্লাবের সভাপতি সেকেন্দার আলম,ক্যাবের সভাপতি কবীর হোসেন, হৃদয়ে আলফাডাঙ্গা পরিচালনা কমিটির অন্যতম সদস্য সাংবাদিক মিয়া রাকিবুলসহ শত শত উপকারভোগীরা উপস্থিত ছিলেন।

এমকে

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়