ঈদ ঘিরে সক্রিয় ছিনতাই টানা ও অজ্ঞান পার্টি

আগের সংবাদ

পবিত্র হজ আজ : ‘লাব্বাইক আল্লাহুম্মা লাব্বাইক’

পরের সংবাদ

গাবতলী হাট

বড় আকারের গরু উট-দুম্বায় আকর্ষণ

প্রকাশিত: জুন ২৭, ২০২৩ , ৯:৩৮ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জুন ২৭, ২০২৩ , ৯:৩৮ পূর্বাহ্ণ

আশানুরূপ ক্রেতা সমাগম না হলেও কেনাবেচা শুরু হয়েছে রাজধানীর সবচেয়ে বড় পশুর হাট গাবতলীতে। ব্যবসায়ীরা আশা করছেন, আজ মঙ্গলবার থেকে পুরোপুরি জমে উঠবে পশু বেচাকেনা। গতকাল সোমবার সরজমিন গাবতলী হাট ঘুরে দেখা গেছে গরুর দাম চড়া। তবে এর মধ্যেও বনিবনায় মিললে কুরবানির পশু বিক্রি হতে দেখা গেছে। এছাড়া হাটের ব্যবস্থাপনা গতকাল পরিদর্শন করেছে পুলিশ ও র‌্যাব। হাটে কাজ করছে ভ্রাম্যমাণ আদালতও।

গাবতলী হাটে গতকাল এই প্রতিবেদকের কথা হয় মানিকগঞ্জের দৌলতপুর থেকে আসা জয়নাল বেপারির সঙ্গে। তিনি জানান, দৌলতপুরের আশপাশের এলাকা থেকে ছোট-বড় মিলিয়ে ২৬টি গুরু এনেছেন তিনি। গত শনিবার হাটে এলেও গরু বিক্রি হয়েছে মাত্র ৪টি। ক্রেতারা এলেও তেমন দাম বলছেন না। এর মধ্যে প্রতিদিনই গরুকে খাওয়াতে হচ্ছে ফলে খরচ বাড়ছে। তবে তিনি আশা প্রকাশ করেন, আজ মঙ্গলবার থেকে পুরোদমে জমে উঠবে গরুর হাট। গাবতলী হাটে গরু কিনতে আসা লালবাগের বাসিন্দা নয়ন বলেন, গরু কিনতে এসেছি, তবে দাম চড়া। আমরা বাজেট ৮০ হাজার টাকা। তবে যে গরুই ধরছি- লাখের নিচে কথা বলছেন না বিক্রেতারা। ঘুরছি, দেখি দাম ও সাধ্যের মিল ঘটতে পারি কিনা। শুধু নয়ন নয়; গরু কিনতে আসা অনেক ক্রেতাই একই কথা জানিয়েছেন।

এদিকে গাবতলী হাটের শোভা বাড়াচ্ছে বড়-বড় গরু। কথা হয় কুষ্টিয়ার খোকসার কমলাপুর গ্রামের গরু বিক্রেতা আজিজুলের সঙ্গে। তিনি জানান, তার ৩৫ মণ ওজনের গরুর নাম ভুট্টো। ৬ দাঁতের এ গরুটিকে তিনি পালছেন প্রায় ৩ বছর। প্রতিদিন ১ হাজার টাকার খাবার খায় ভুট্টো। গরুটির দাম তিনি হাঁকছেন ১৪ লাখ টাকা। অনেকে দেখে গেলেও সেভাবে দাম বলছে না বলেও জানান তিনি। হাটে কথা হয় চুয়াডাঙ্গার কানাইডাঙ্গা গ্রামে বড় গরু কালা পাহাড়ের মালিক মো. সায়েদুর রহমানের সঙ্গে। তিনি জানান, ৬ দাঁতের ২ বছরের বেশি বয়স কালা পাহাড়ের।

এ গরুটিকে রোজ ১ হাজার ২০০ টাকার মতো খাবার দিতে হয়। প্রায় ২৫ মণ ওজনের গরুটির দাম চেয়েছেন তিনি ২০ লাখ টাকা। অন্যদিকে, ক্রেতার আনাগোনা কিছুটা কম থাকলেও শুধু রাজধানীর বাসিন্দাই নয়; গাবতলী হাটে গরু কিনতে ক্রেতা আসছেন ঢাকার বাইরে থেকেও। গতকাল হাটে কথা হয় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মো. জুবায়েদের সঙ্গে। তিনি জানান, ৬ লাখ টাকায় সম্রাট নামে একটি গরু কিনেছেন তিনি। এখন ট্রাক বা পিকআপ ভাড়া করে গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যাবেন।

গাবতলী হাটে শুধু গরুই নয়; রয়েছে দুম্বাও। কথা হয় কেরানীগঞ্জের বাঘনা এলাকার দুম্বা বিক্রেতা মো. জিয়াউর রহমানের সঙ্গে। তিনি বলেন, এক বছর ধরে একজোড়া দুম্বা পালন করছি। এগুলো যাদের ব্রিডের সেগুলো সৌদিআরব থেকে আনা হয়েছিল। এক জোড়া দুম্বার দাম চেয়েছেন তিনি ৭ লাখ টাকা। হাটে রয়েছে আকর্ষণীয় ছাগলও। গতকাল কথা হয় ঝিনাইদহের ছাগল বিক্রেতা জায়েদুল ইসলামের সঙ্গে। তিনি জানান, ভারতের হারিয়ানা জাতের একটি ছাগল প্রায় ৩ বছর ধরে পালন করছেন তিনি। ৪ দাঁতের এই ছাগলের ওজন ৭০ কেজি। এর দাম চাচ্ছেন তিনি ১ লাখ ২০ হাজার টাকা।

এদিকে গতকাল পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন গাবতলীর হাট পরিদর্শন করেন। এ সময় হাটসহ ঈদকে কেন্দ্র করে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি। যে কোনো প্রয়োজনে জাতীয় জরুরি ৯৯৯ যোগাযোগ করার পরামর্শ দেন তিনি। র‌্যাব কর্মকর্তরাও গতকাল গাবতলী হাট পরিদর্শন করেন।

এ সময় র‌্যাব মুখপাত্র কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, হাটকেন্দ্রিক দালাল, অজ্ঞান পার্টি, মলম পার্টি, প্রতারক চক্র ও জাল টাকা কারবারিদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালিত হচ্ছে। গত রবিবার রাত থেকে হাটকেন্দ্রিক অভিযানে প্রতারণা, ছিনতাইয়ে জড়িত ২০ জনকে আমরা আটক করেছি। এছাড়া কিছু অসাধু ব্যবসায়ী কৃত্রিম উপায়ে রাসায়নিক দ্রব্য খাইয়ে গরু মোটাতাজাকরণ করে অথবা অস্বাস্থ্যকর গবাদি পশু বিক্রি করেন। এসবের বিরুদ্ধে প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায়, ভেটেরেনারি ডাক্তারের সমন্বয়ে র‌্যাব একটি টিম গঠন করে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করছে। বিভিন্ন হাটে এই টিম পর্যবেক্ষণে যাচ্ছে। গতকাল মানসম্মত নয় এমন গরু আনায় ১৫ জন ব্যবসায়ীকে সতর্ক করে র‌্যাব।

এসএম

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়