১৪ বছরে ৪৫ ওষুধ কোম্পানির লাইসেন্স বাতিল

১৪ বছরে ৪৫ ওষুধ কোম্পানির লাইসেন্স বাতিল

আগের সংবাদ
ঋণ পরিশোধ করেও বৃদ্ধকে যেতে হলো জেলে

ঋণ পরিশোধ করেও বৃদ্ধকে যেতে হলো জেলে

পরের সংবাদ

রোনালদোর রেকর্ডের রাতে ব্রাজিল-জার্মানির হার

প্রকাশিত: জুন ২১, ২০২৩ , ৯:৫৩ অপরাহ্ণ আপডেট: জুন ২১, ২০২৩ , ৯:৫৩ অপরাহ্ণ
রোনালদোর রেকর্ডের রাতে ব্রাজিল-জামার্নির হার

পর্তুগালের জার্সিতে নিজের ২০০তম ম্যাচে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর একমাত্র গোলে ইউরো ২০২৪ বাছাইপর্বে আইসল্যান্ডকে হারিয়েছে ১-০ গোলে পর্তুগাল। এদিকে বায়ার্ন মিউনিখ তারকা সাদিও মানের জোড়া গোলে সেনেগালের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে ৪-২ গোলে পরাস্ত হয় ব্রাজিল। এছাড়াও কলম্বিয়ার মাঠে ২-০ গোলে হেরেছে চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন জার্মানিও।

ইতিহাসের প্রথম ফুটবলার হিসেবে বুধবার (২১ জুন) ক্যারিয়ারের ২০০তম আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলে ফেললেন পর্তুগিজ তারকা রোনালদো। দেশের হয়ে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলার রেকর্ডটা তার আগে থেকেই ছিল। গত মার্চে লিখটেনস্টেইনের বিপক্ষে ইউরো বাছাইপর্বেই কুয়েতের সাবেক ফুটবলার আল মুতওয়ার ১৯৬ ম্যাচ খেলার রেকর্ড ছাড়িয়ে গিয়েছিলেন। বুধবার ম্যাচের ৮৯ মিনিটে রোনালদোর পা থেকে আসা জয়সূচক গোলটি ছিল তার ক্যারিয়ারের রেকর্ড ১২৩তম গোল। তবে অফসাইডের কারণে রেফারি প্রথমে গোলটি বাতিল করে দিলেও ভিএআরে চেক করে অফসাইডের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করেন। আইসল্যান্ডের বিপক্ষে গোল পেতে গতকাল ভালোই বেগ পেতে হয়েছে পর্তুগালের আক্রমণভাগের খেলোয়ারদের। কিছুতেই রক্ষণ ভেদ করতে পারছিলেন না রোনালদো-বার্নাদো সিলভারা। তবে ম্যাচের ৮১ মিনিটের মাথায় দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে আইসল্যান্ডের থর উইলুমসন মাঠ ছাড়লে দশজনের দলে পরিণত হয় আইসল্যান্ড। সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে গোল বের করে নেন রোনালদোরা।

পুরো ম্যাচে রক্ষণে মনোযোগ দেয়া আইসল্যান্ড অবশ্য প্রথমার্ধে দুটি ভালো সুযোগ নষ্ট না করলে ফলফল ভিন্ন হতে পারতো। প্রথমার্ধে তারাই বেশির ভাগ সময় প্রাধান্য বিস্তার করে খেলেছে। তবে দ্বিতীয়ার্ধে পর্তুগাল ম্যাচের নিয়ন্ত্রণটা নিয়ে নেয়। কয়েকটি ভালো সুযোগ তৈরির ফল হিসেবেই ৮৯ মিনিটের গোলে জয় নিশ্চিত করে তারা। দেশের হয়ে ২০০তম ম্যাচ খেলে দারুণ উচ্ছ্বসিত রোনালদো।

ম্যাচশেষে তিনি বলেন, ‘এটা দুর্দান্ত একটা অর্জন আমার ক্যারিয়ারে। সত্যিই অনন্য অর্জন।’ তবে রোনালদো অবশ্য সবচেয়ে বেশি খুশি নিজের ১২৩তম গোলটি দিয়ে দলকে জেতাতে পেরে। তিনি আরো বলেন, ‘ম্যাচে আমার গোলে আমার দল জিতেছে। এটা আমার ২০০ ম্যাচ খেলার অর্জনের চেয়েও বিশেষ কিছু।’ টানা চার জয়ে ইউরো বাছাইয়ে নিজেদের গ্রুপে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে পর্তুগাল। ৪ ম্যাচের তাদের পয়েন্ট ১২।
পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল এদিনো সেনেগালের বিপক্ষে খেলতে নামে কোচ ছাড়া। গত বিশ্বকাপের পর কোচের পদ থেকে সড়ে দাঁড়ান তিতে।

গোড়ালির চোটে পরা নেইমারকে ছাড়াই খেলতে নামা দক্ষিণ আমেরিকান জায়ান্টরা ১০ মিনিটেই এগিয়ে যায়। রিয়াল মাদ্রিদ তারকা ভিনিসিয়াসের ক্রসে লুকাস পাকুয়েটা হেড ঠেকাতে ব্যর্থ হন গোলরক্ষক ডিয়াওয়ে। তবে বেশিক্ষণ লিড ধরে রাকতে পারেনি তারা। স্ট্রাসবার্গ ফরোয়ার্ড হাবিব ডিয়ালোর বাম পায়ের জোড়ালো ভলিতে ২২ মিনিটেই সমতায় ফিরে সেনেগাল। ১-১ গোলের সমতাতেই বিরতিতে যায় দুদল। দ্বিতীয়ার্ধে ৫২ মিনিটের মাথায় পিএসজি ডিফেন্ডার মারকুইনহোসের আত্মঘাতি গোলে এবার এগিয়ে যায় সেনেগাল। ইনজুরির কারণে বিশ্বকাপে খেলতে না পারা মানে তিন মিনিট পরেই দুর্দান্ত বাঁকানো শটে ব্যবধান আরো বাড়ান। ৫৮ মিনিটে সেনেগালিজ গোলরক্ষক মোরি ডিয়াওয়ের ভুলে মারকুইনহোস গোল করলে লড়াইয়ে ফেরার ইঙ্গিত দেয় ব্রাজিল। কিন্তু অতিরিক্ত সময়ের সাত মিনিটের মাথায় পেনাল্টি থেকে নিজের দ্বিতীয় গোল করে আফ্রিকান চ্যাম্পিয়ন সেনেগালের দারুণ এক জয় নিশ্চিত করেন সাদিও মানে।

এদিকে গেলসেনকার্চেনের ঘরের মাঠে প্রীতি ম্যাচে লিভারপুল ফরোয়ার্ড লুইস দিয়াজ ও জুভেন্টাস ফুলব্যাক হুয়ান কুয়াড্রাডোর দুই গোলে জার্মানিকে ২-০ ব্যবধানে পরাজিত করেছে কলম্বিয়া। ট্রেবল জয়ী ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে সাম্প্রতিক সাফল্যের পুরস্কার হিসেবে কাল জার্মানির অধিনায়কের আর্মব্যান্ড পান সিটি অধিনায়ক ইকে গুনডোগান। নিয়মিত অধিনায়ক কিমিচ কাল মূল দলের বাইরে ছিলেন। গোলশূন্য প্রথমার্ধের পর ম্যাচের ৫৪ মিনিটে কুয়াড্রাডোর ক্রস থেকে দিয়াজের হেড ঠেকাতে ব্যর্থ হন বার্সেলোনার তারকা গোলরক্ষক মার্ক আন্দ্রে টের স্টেগেন। মাঠে নামর ৫ মিনিটের মধ্যেই ৮২ মিনিটে জার্মান অধিনায়ক জসুয়া কিমিচের হ্যান্ডবলের কারণে পেনাল্টি পায় কলম্বিয়া। স্পট কিক থেকে গোল করে জুভেন্টাসের উইংব্যাক কুয়াড্রাডো কলম্বিয়ার জয় নিশ্চিত করেন। এটি ছিল জার্মানীর বিরুদ্ধে কলম্বিয়ার প্রথম জয়। এদিকে কাতার বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকে হতাশাজনক বিদায়ের পর শেষ পাঁচ ম্যাচে চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন জার্মানি জয় পেয়েছে মাত্র একটিতে। আগামী বছর ঘরের মাঠে ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপকে সামনে রেখে জার্মান কোচ হান্সি ফ্লিক আরো একবার দুঃশ্চিন্তার মধ্যে পড়লেন।

কাল ম্যাচ শেষে ফ্লিক বলেছেন, ‘আমি সত্যিই সমর্থকদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করছি। আমরা দলে ভিন্ন কিছু করার চেষ্টা করছি। কিন্তু প্রতিবারই আমাদের কিছু কমতি থেকে যাচ্ছে।’ আগামী সেপ্টেম্বরে বাকি প্রীতি ম্যাচগুলোতে ফলাফল ইতিবাচক হবে বলে আশাবাদ ব্যাক্ত করেন ফ্লিক। কিন্তু ইউরো ২০২৪’এর আগে ফ্লিক যতই তার দল নিয়ে পরীক্ষা-নিরিক্ষা করুক না কেন, ধারাবাহিক ব্যর্থতায় তার ভবিষ্যৎ নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

টিএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়