রাতের নিউজ ফ্ল্যাশ

আগের সংবাদ

আত্মসমর্পণ করতে পারেন অমৃতপাল!

পরের সংবাদ

জুড়ীতে নদী ভাঙনে বিলীনের পথে সড়ক

প্রকাশিত: মার্চ ২৯, ২০২৩ , ৮:০৩ অপরাহ্ণ আপডেট: মার্চ ২৯, ২০২৩ , ৮:০৪ অপরাহ্ণ

দুই দিন ধরে বন্ধ যানবাহন চলাচল

দ্রুত সংস্কারে মন্ত্রীর নির্দেশ

ঝুঁকিতে দোকানপাট ও বসতভিটা

মৌলভীবাজার জেলার জুড়ী উপজেলার জায়ফরনগর ইউনিয়নের গরেরগাঁও হতে রাবার ড্যাম পর্যন্ত পাকা সড়কের গরেরগাঁও অংশে বিশাল নদী ভাঙন দেখা দিয়েছে। ভাঙনের ফলে জুড়ী নদীতে পুরো সড়কটি বিলীন হওয়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে। সড়কে ভাঙন দেখা দেয়ায় এ সড়কে চলাচলকারী হাজার হাজার সাধারণ মানুষের যাতায়াত এখন বন্ধের পথে। গত দুই দিন ধরে এ সড়কে সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। তবে এ সড়কটির ভাঙন দ্রুত মেরামত করতে তাৎক্ষণিক নির্দেশনা দিয়েছেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন, এমপি।

সরজমিনে বুধবার (২৯ মার্চ) বিকেলে গিয়ে দেখা যায়, এ সড়কের গরেরগাঁও অংশের ভাঙন বিশাল আকার ধারণ করেছে। এলাকাবাসী বড় ধরনের ঝুঁকি ও দুর্ঘটনা এড়াতে বাঁশের বেড়া দিয়ে যান চলাচল বন্ধ করে দিয়েছেন। সাধারণ মানুষ ও ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা উপরের একটু ভালো অংশ দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে কোনো রকম চলাচল করছেন। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ভাঙন বাড়ায় আশেপাশের বেশ কিছু দোকানপাট ও বসতভিটা ঝুঁকিতে রয়েছে।

জানা যায়, এ সড়কে গরেরগাঁও, বেলাগাঁও ও সোনাপুর গ্রামের হাজারো মানুষসহ এশিয়ার বৃহত্তম হাকালুকি হাওরে চলাচলকারী পর্যটক ও কৃষকদের সুবিধার কথা চিন্তা করে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন, এমপি সড়কটি পাকাকরণ করে দেন। কিন্তু হঠাৎ করে গত শনিবার সড়কের গরেরগাঁও অংশে সামান্য ভাঙন দেখা দেয়‌। এরপর থেকে ধীরে ধীরে ভাঙন বেড়ে গিয়ে বিশাল আকার ধারণ করেছে। দ্রুত সড়কটিকে রক্ষায় কাজ না করা গেলে যেকোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। বর্তমানে দুর্ঘটনা ও সড়কটি বিলীনের আশঙ্কায় গ্রামবাসী আতঙ্কে আছে। সড়কটি দ্রুত রক্ষা করা না গেলে হাকালুকি হাওরের কৃষকদের কৃষিপণ্য পরিবহন মারাত্মক ভাবে ব্যাহত হবে।

আলাপকালে স্থানীয় বাসিন্দা ফারুক মিয়া ও সাইফুর রহমান বলেন, এ সড়কে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ চলাচল করে। সড়কটিতে ভাঙন দেখা দেয়ায় মানুষের চলাচলের পাশাপাশি দোকানপাট ও বাড়িঘর হুমকির মুখে পড়েছে। দ্রুত সড়কটি মেরামত না করা হলে যে কোন সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা করতে পারে।

জুড়ী উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রিংকু রঞ্জন দাস বলেন, সড়কটি দ্রুত মেরামতের বিষয়ে পরিবেশমন্ত্রী সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দিয়েছেন। সড়কটি দ্রুত সময়ের মধ্যে সংস্কার কাজ শুরু হবে।

মৌলভীবাজার পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. জসিম উদ্দিন বলেন, পানি উন্নয়ন বোর্ডের পক্ষ থেকে ভাঙনের জায়গাটি পরিদর্শন করেছি। এটি রক্ষায় উদ্যোগ নেয়া হবে।

সড়কটির ভাঙনের বিষয়ে জুড়ী উপজেলা প্রকৌশলী ননী গোপাল দাস বলেন, ইতিমধ্যে বেশ কয়েকবার সড়কটি পরিদর্শন করেছি। দ্রুত সময়ের মধ্যে সড়কটি মেরামতের উদ্যোগ নেয়া হবে।

এনজে

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়