উত্তোলন কমাচ্ছে রাশিয়া, বাড়ছে তেলের দাম

আগের সংবাদ

ঢাকার বায়ু আজ ‘বিপজ্জনক’

পরের সংবাদ

চট্টগ্রাম অফিস

জমে উঠছে চট্টগ্রামে একুশের বইমেলা

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ১১, ২০২৩ , ৯:২০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১১, ২০২৩ , ৩:২৭ অপরাহ্ণ

পাঠক-দর্শক-লেখক-সাংস্কৃতিক কর্মীদের অনাগোনায় জমে উঠছে চট্টগ্রামে অমর একুশে বইমেলা। শুক্রবার বন্ধের দিন হওয়াতে এদিন দর্শক-পাঠকের সংখ্যা ছিল বেশি। স্টলগুলোতে ঘুরে ঘুরে নানা শ্রেণি-পেশার নাগরিকরা তাদের পছন্দের বই খুঁজে নিচ্ছিলেন। নগরীর এম এ আজিজ স্টেডিয়াম সংলগ্ন জিমনাসিয়াম মাঠে বইমেলাকে ঘিরে শুক্রবার বিকেলে অনেকটা মিলনমেলায় পরিণত হয়।

দেখা গেছে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক বই, উপন্যাস, শিশুতোষ বইয়ের প্রতি আগ্রহ বেশি দেখা গেছে। অপরদিকে একুশের মঞ্চে চলছে বিভিন্ন লেখকদের বইয়ের মোড়ক উন্মোচন, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও আলোচনাসভা। এদিন বইমেলার মঞ্চে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। আর মেলার বিভিন্ন স্টলে লেখক-কবি-সাংস্কৃতিক কর্মীদের আড্ডায় প্রাণবন্ত হয়ে উঠছে মেলা প্রাঙ্গণ।

শুক্রবার বন্ধের দিন থাকায় মেলা শুরু হয়েছে সকাল ১০টা থেকে। তবে দিনের প্রথমভাগে দর্শক ও ক্রেতাদেও ভীড় কম থাকলেও বিকেলের পর থেকে অনেকটা জমজমাট হয়ে ওঠে মেলা। কবি-প্রাবন্ধিক কামরুল হাসান বাদল ভোরের কাগজকে বলেন, এবারের মেলায় অনেকটা গুণগত পরিবর্তন এসেছে বলেই মনে হয়। কারণ এর আগের মেলাগুলোতে স্টল মালিকরা যেনতেনভাবে বই প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করতেন। এবার অন্তত: বই প্রদর্শনীর ক্ষেত্রে স্টলগুলোকে আকর্ষণীয় করার চেষ্টা করেছেন। এটি একটি ভালো দিক।

বেশকিছুদিন প্রবাসে থেকে শুক্রবার দুপুরে চট্টগ্রাম ফিরেছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কবি হোসাইন কবির। এদিন চট্টগ্রাম এসেই তিনি ছুটে গেছেন বইমেলায়। বললেন, বইমেলায় না গিয়ে তো থাকতে পারিনা। শুধু বই মেলাতো নয় এটি আমাদের বাঙালি সংস্কৃতির একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে গেছে। বইয়ের প্রতি আমাদের যে আকর্ষণ আছে সেটি সত্যিকার অর্থে বইমেলায় না গেলে বোঝা যায়না।

এনজে

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়